Couple holding hands

প্রেম বা বিয়ে তার সাথেই করুন যে আপনাকে শেষ পর্যন্ত মূল্যায়ন করবে। আপনার অস্তিত্ব তার কাছে ম্যাটার করবে। আপনাকে শেষ পর্যন্ত ধরে রাখার যার ক্যাপাবিলিটি থাকবে।
প্রেমে কমবেশি সকলেই অন্ধ হয়ে যান, ভালো-মন্দ যাচাই করতে পারেন না। কিন্তু একজন নারীর জন্য ভালো জীবন সঙ্গী খুবই জরুরী। কেননা একজন ভালো মনের পুরুষ কখনো আপনাকে কষ্ট দেবেন না তার যত কষ্টই হোক না কেন সে আপনাকে ছেড়ে যাবে না।

জেনে নিন ১৫টি লক্ষণ আপনার প্রিয়জন কতটা ভালো মানুষ।

১/ একজন ভালো মনের পুরুষ কখনোই ভালোবাসার প্রকাশে দ্বিধা করবেন না। সত্য প্রকাশে সংকোচ কীসের?

২/ তিনি সব সময়েই আপনার পাশে থাকবেন, আপনাকে সাপোর্ট দেবেন।

৩/ তিনি আপনাকে উৎসাহ যোগাবেন সর্বদাই জীবনের পথে এগিয়ে চলতে।

৪/ আপনার বিশ্বাস অর্জন ও ধরে রাখার চেষ্টা সর্বদা একজন ভালো মনের প্রেমিক বা স্বামীর মাঝে থাকবে।

৫/ তাঁর সংস্পর্শে আপনি নিরাপদ বোধ করবেন, তিনি সর্বদা নিশ্চিত করবেন আপনার নিরাপত্তা।

৬/ তিনি কখনো এমন কিছুই বলবেন বা করবেন না যার ফলে নিজেকে আপনার অসুন্দর মনে হয়।

৭/ আপনার ছোটখাট সকল পছন্দ-অপছন্দকেই তিনি গুরুত্বদেবেন।

৮/ প্রতিটি সম্পর্কেই একটি সীমারেখা থাকে। তিনি সেই সম্মানের সীমারেখা কখনোই লঙ্ঘন করবেন না।

৯/ সম্পর্ক ধরে রাখার ও সম্পর্ক ভালো রাখার চেষ্টা সারা জীবন করবেন তিনি।

১০/ আপনাকে নিজের ইচ্ছা বিরুদ্ধে কিছু করতেই কখনো বাধ্য করবেন না তিনি।

১১/ তিনি হবেন সৎ ও আত্মসম্মানবোধে ভরা মানুষ। কেবল আপনার সাথে নন, সবার সাথেই।

১২/ তিনি কখনোই আপনাকে শারীরিক-মানসিক নির্যাতনের কথা স্বপ্নেও ভাববেন না।

১৩/ তিনি কখনোই কারো শরীরের সৌন্দর্যকে মনের আগে গুরুত্ব দেবেন না।

১৪/ তিনি আপনাকে অবিশ্বাস করবেন না। আপনি তাঁকে অবিশ্বাস করেন, এমন কিছু করবেন না।

১৫/ নোংরা কোন বদ অভ্যাস তাঁর থাকবে না। অতীতে থেকেথাকলেও আপনার খাতিরে সেগুলো তিনি ত্যাগ করবেন।

ব্যথা হলেই কি পেইন কিলার নেন? তবে হারাতে পারেন স্বাদের যৌনক্ষমতা

শরীর কিংবা মাথার ব্যথা শুরু করেছে আর অমনি আপনি হাতের নাগালে রাখা পেইন কিলার খেয়ে ফেললেন। হয়তো সাময়িক সময়ের জন্য আপনার ব্যথা কমে গেলো। আবার অনেক সময় হয় যে ব্যথা কমে না। তারপরও হরহামেশা ব্যথার ঔষধ খেয়েই যাচ্ছেন। এবার একটু সাবধান হোন তবে। বিশেষত পুরুষদের ক্ষেত্রে তো অবশ্যই। ইবুপ্রফেনের ওপর গত কয়েক বছর ধরে গবেষণা চালিয়েছেন একদল বিজ্ঞানী।

গবেষণা শেষে তারা জানিয়েছেন, কোনও মানুষ, বিশেষত পুরুষ অতিরিক্ত মাত্রায় পেইন কিলার খায় তাহলে একটা সময় আসবে যখন তারা যৌন ক্ষমতা হারাতে পারেন। পাশাপাশি মানব শরীরের পেশী ভেঙে যাওয়া ও ক্লান্তির মতো নানা সমস্যায় পড়তে পারেন।

বিজ্ঞানীরা ১৮ থেকে ৩৫ বছর পুরুষদের ওপর ছয় সপ্তাহ ধরে মারাত্মক এই গবেষণা চালান। গবেষণা চলাকালীন ইবুপ্রফেন খাওয়ার পর পুরুষদের যৌন হরমোনের গতি প্রকৃতি কী অবস্থায় থাকে তা পরীক্ষা করে দেখেন তারা।

এতে দেখা যায়, দিনে দু’বার ৬০০ মিলিগ্রাম করে ইবুপ্রফেন পেইন কিলার ওষুধ তাদের শরীরে টেসটোস্টেরনের মাত্রা বাড়িয়ে দিলেও শরীরের স্বাভাবিক নিয়ম ব্যহত হয়।

Comments

comments